‘রোমান্সোকর’ – গদ্য ধারার চতুর্থ গল্প – প্রেম (২) – কৌশিক মজুমদার

‘রোমান্সোকর’ – গদ্য ধারার চতুর্থ গল্প – প্রেম (২) – কৌশিক মজুমদার

প্রেম (২)

“মানে এমনি সম্পর্ক ঠিক থাকলে তো নর্মাল কথা হয়। কিন্তু ঝগড়া হলেই সেটা চলতেই থাকে।” ওর থেকেই জানলাম প্রেম ঝগড়ার নাকি একটা দস্তুর।

কৌশিক মজুমদার

প্রেমের সাকসেস রেট ইদানিং খুব হাই। আমাদের ছোটবেলা প্রেম করলে প্রথমেই আরং ধোলাইয়ের জন্য তৈরী থাকতে হত। মেয়ে হোক বা ছেলে, পাড়ার কাকিমার থেকে খবর পেলেই আগে বাবা ক্যালাতো, পরে বলত কেন ক্যালালো। ফলে মিস হিটও হত মাঝে মাঝেই। প্রথম ধাক্কাতেই অনেক প্রেম খসে যেত। হোস্টেল যাবার পর প্রেম আবার ফিরে আসত সরবে।

দুনিয়ার তাবৎ প্রেমিক তাদের প্রেমিকাদের বোন বলে পরিচয় দেয়। আমাদের হোস্টেলে এই প্রথা বাড়াবাড়ি রকম ছিল। এতটাই যে একবার আমার এক বন্ধুর সত্যিকার বোন ভর্তি হল। উৎসাহী ছেলের দল দেখে এসে তাঁকেই জানাল ” বউদিকে দেখে এলাম। পুরো তোর মত দেখতে তো রে”। তারপর যা হল না বলাই ভাল। 

এই হোস্টেল প্রেমিকরা নিজেদের বেশ কেউকেটা মনে করতেন। প্রেমিকার ছবি মানিব্যাগে রাখতেন। আর সর্বদাই ব্যস্ত থাকতেন। সন্ধ্যায় ছাদে গেলে অপরূপ দৃশ্য দেখা যেত। ছাদের মাঝে একদল নন প্রেমিক গুলতানি মারছে আর তাস খেলছে। আর ঈশান, বায়ু, অগ্নি, নৈঋত সব সম্ভব অসম্ভব কোণে দন্ডায়মান এক একজন প্রেমিক। কানে ফোন। কারও ফোন শেষ হতেই সে মাঝে চলে আসতে চাইছে। প্রায় সাথে সাথেই বেজে উঠছে মোবাইল আর সে বেচারীও গরমে পাঁক দেখা মোষের মত ছুটছে ফেলে আসা কোণে। অনেকে আবার পর্যটক প্রেমিক। ফোন কানে নিয়েই ছাদের এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্তে টহল দিচ্ছেন। টানা হাঁটলে ক্রস কান্ট্রি চাম্পিয়ান হতেন।

একবার একজনকে জিগালাম ” হ্যাঁ রে কি এত কথা বলিস সারাদিন?” -“জানিস না? ঝগড়া করি।” -“মানে?” -“মানে এমনি সম্পর্ক ঠিক থাকলে তো নর্মাল কথা হয়। কিন্তু ঝগড়া হলেই সেটা চলতেই থাকে।” ওর থেকেই জানলাম প্রেম ঝগড়ার নাকি একটা দস্তুর। ফোন রাখা যাবে না। রাখলে কি তুমি গেলে। ঝগড়ার মাঝে ফোন রিচার্জও নাকি করায় কেউ কেউ।

একবার এক অঘটন ঘটল। সেই ছেলের প্রেমিকা তাঁকে ছেড়ে দিল। গভীর রাতে ছাতের আলসেতে ভর পেট মদ খেয়ে সে ঘোষনা করল এ জীবন সে রাখবে না। আজই ছাত থেকে লাফ দেবে। বাকিরা পাত্তা না দিলেও একজন প্রায় তাঁর পায়ে ধরে বলল”বন্ধু প্লিজ তুই এখন আত্মহত্যা করিস না। লোকে ভাববে আমরা তোকে ঠেলে ফেলেছি। আমি নিচে রুমে গিয়ে মিসকল দেব। তারপর লাফাস” জানি না সেই শুনে কি না, বেচারা সে যাত্রা আর লাফায় নি।


প্রেম (১)
 

2 thoughts on “‘রোমান্সোকর’ – গদ্য ধারার চতুর্থ গল্প – প্রেম (২) – কৌশিক মজুমদার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *